করোনা মহামারি আসলে কি সেটা আমরা কেউ উপলব্ধি করতে পারেনি প্রথমে। আজ থেকে দেড় বছর আগে করোনাভাইরাস যখন বাংলার মানুষের দোরগোড়ায় এসে পড়ে তখন আমি মনে করেছিলাম আমরা হয়তো খুব তাড়াতাড়ি আমাদের প্রজ্ঞা অভিজ্ঞতা দিয়ে এটাকে শেষ করতে পারবো। তবে এটাও সত্য যে, আমাদের প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা প্রথম দিক থেকে যেভাবে তিনি সুষ্ঠুভাবে আমাদের বাংলাদেশের স্বাস্থ্যব্যবস্থাকে পরিচালিত করেছিল। আসলে পৃথিবীর সব দেশেই অনেক চিকিৎসক মারা গিয়েছে। আমাদের জন্য এখন স্বস্তির বিষয় হচ্ছে যে আমাদের দেশে এখন পর্যাপ্ত টিকা আছে এবং সরকার থেকে আমরা প্রতিনিয়ত জানছি যে, কখন কোন বয়সের মানুষ কখন টিকা নিতে পারবে। এটা আমাদের জন্য খুবই খুশির সংবাদ।

দৈনিক ভোরের পাতার নিয়মিত আয়োজন ভোরের পাতা সংলাপের ৪১৭তম পর্বে শনিবার (৩১ জুলাই) আলোচক হিসেবে উপস্থিত হয়ে এসব কথা বলেন- বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি, সাবেক সংসদ সদস্য, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, সাবেক পররাষ্ট্র সচিব, বাংলাদেশ হেরিটেজ ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা প্রেসিডেন্ট ড. ওয়ালি-উর রহমান, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) মহাসচিব অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আবদুল আজিজ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্যবিষয়ক উপ কমিটির সদস্য, চট্টগ্রাম ফিল্ড হাসপাতালের প্রধান উদ্যোক্তা ডা. বিদ্যুৎ বড়ুয়া। দৈনিক ভোরের পাতা সম্পাদক ও প্রকাশক ড. কাজী এরতেজা হাসানের পরিকল্পনা ও নির্দেশনায় অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ভোরের পাতার সিনিয়র রিপোর্টার উৎপল দাস।

ডা. বিদ্যুৎ বড়ুয়া বলেন, আসছে টিকা আসবে টিকা। এই টিকা কার জন্য আসছে? অবশ্যই জনগণের জন্য। জনগণের জন্য এই টিকা সুনিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি ঘোষণা দিয়েছেন একজন মানুষও টিকার বাইরে থাকবে না। কিন্তু আমরা সাধারণ জনগণকে এই টিকা নিতে হলে অবশ্যই সুস্থ থাকতে হবে এবং সুস্থ রাখতে হলে যা যা বিধি-নিষেধ পালন করা দরকার সরকার ইতোমধ্যেই সেটা ঘোষণা করেছে এবং লকডাউন দিয়েছে। মানুষের জীবন সুরক্ষা করার জন্য সত্যিকার অর্থে টিকার সরবরাহ চলমান রয়েছে। সুতরাং আমি বিনীতভাবে আপনাদের মাধ্যমে আপনাদের ভোরের পাতার মাধ্যমে অনুরোধ করবো সাধারণ জনগণকে আপনারা একটু ধৈর্য ধরুন এবং স্বাস্থ্যবিধি আমরা যদি সরকারকে সহায়তা করতে পারি তাহলে নিশ্চিতভাবে প্রত্যেকটা মানুষকে নিয়ে আমরা করোনাকে জয় করবো এবং সারা বিশ্বে আমরা দেখিয়ে দিতে পারবো যে, আমরা সুশৃঙ্খল জাতি হিসেবে সরকারের নির্দেশ মেনে আমরা টিকা গ্রহণ করেছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *